সম্পত্তি কেড়ে নিয়েছে ছেলে: রেমন্ড গ্রুপের মালিক এখন ভাড়া বাসায়

ডেস্ক রির্পোট: ভারতের ধনকুবের বিজয়পাত সিংহানিয়া। শীর্ষ শিল্পপতির তকমা নিয়ে গোটা জীবন পার করেছেন। গড়ে তুলেছেন উল ও সুতি কাপড়ের বিশাল ব্যবসা। রেমন্ড গ্রুপের নাম এখন ভারত ছাড়িয়ে বিশ্বের প্রথমসারির দেশগুলোতে ছড়িয়ে আছে। নেপথ্যে ম্যাজিক বিজয়পাত সিংহানিয়ার। বুড়ো বয়সে এসে থমকে গেলেন। যেই রেমন্ড গ্রুপের এখন ৮০০ মিলিয়ন ডলারের সম্পত্তি, সেই সম্পত্তি আর ভোগ করতে পারছেন না তিনি। ২০১৫ সালে ছেলেকে ৩৭ ভাগ সম্পত্তির শেয়ার দিয়ে বসান ব্যবসায়। ছেলে এসেই চাকা ঘুরিয়ে দিয়েছেন অন্যদিকে। ব্যবসার স্বার্থের কথা বলে একে একে বুড়ো বাবাকে ঠেলে দিলেন ক্ষমতা আর সম্পত্তির বাইরে। বছর বছর লাভের মুখ দেখলেও বাবার সঙ্গে বিরোধ বাড়তে থাকে পুত্র গৌতম সিংহানিয়ার। সে গল্পে যাওয়ার আগে রেমন্ড গ্রুপের সম্পত্তির একটা ধারণা নেওয়া যাক। ভারতের মুম্বাইয়ে রেমন্ড গ্রুপের  কেন্দ্রীয় কার্যালয়। রেমন্ড গ্রুপের খ্যাতি পশমি সুতার স্যুট, পোশাক তৈরির জন্য। আমাদের এখানে তো বটেই বিশ্বের নানা প্রান্তে স্যুট, প্যান্টের কথা বললে অভিজাত ব্র্যান্ড হিসেবে চিহ্নিত রেমন্ড। রেমন্ডের রয়েছে, ফেব্রিক, গার্মেন্ট, নিজস্ব ফ্যাশন ডিজাইনারদের পোশাক, ডেনিম, কসমেটিকস ও টয়লেট্রিজ, ইঞ্জিনিয়ারিং ফাইল 

অ্যান্ড টুলস, বিমান পরিসেবা, অবকাঠামো নির্মাণসহ নানা ধরনের ব্যবসা। সত্যি বলতে, ব্যবসায়িক সাম্রাজ্য বলতে যা বোঝায়, তাই। বিশ্বের অন্যতম প্রথমসারির এই ব্যবসা গড়ে তোলার পেছনে পুরো কৃতিত্ব বিজয়পাত সিংহানিয়ার। কিন্তু বয়সের ভারে যখন ব্যবসা ছেলের হাতে তুলে দিলেন তখন অনেকটাই বিপাকে পড়েছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি। দুই বছর হতে চলল ছেলের সঙ্গে কথা বলা বন্ধ। ছেলে গৌতম সিংহানিয়া বিয়ে করার পর থেকেই মিডিয়ার আলোচনায় ছিলেন। ধনকুবেরের ছেলে, তার বিলাসবহুল লাইফস্টাইল নিয়ে মসলাদার খবর মিডিয়াতে প্রায়ই আসত। সেসব অগ্রাহ্য করে ১২ হাজার কোটি টাকার সম্পত্তি ও ব্যবসার দায়ভার তার কাঁধেই দেবেন বাবা- সেটাই স্বাভাবিক। হলোও তাই। কিন্তু এরপর থেকেই ছেলের একের পর এক ব্যবসায়িক সিদ্ধান্তে নাখোশ বাবা। বাবা বিজয়পাত সিংহানিয়াকে নাকি অফিস থেকে গালাগাল, ধাক্কা দিয়ে তাড়িয়ে দিয়েছেন ছেলে! করেছেন বাড়িছাড়াÑ সেই অভিযোগও করেছেন বাবা। ছেলেকে সম্পত্তি লিখে দেওয়ার কথা মনে করেই সবাইকে বলেছেন, ‘বেঁচে থাকতে সঞ্চয়ের সবটুকু ছেলেকে লিখে দেওয়ার মতো বোকামি করবেন না কেউ।’

যেভাবে বাধল জট

♦  ২০১৫ সালে ছেলে গৌতম সিংহানিয়াকে সম্পত্তির ৩৭ ভাগ শেয়ার দিয়ে দেন বাবা বিজয়পাত সিংহানিয়া। প্রাসাদসম বাড়িও ছিল সেই শেয়ারে।

♦  সিংহানিয়া পরিবারের ৩৬ তলার জে কে ভবনে একটি অ্যাপার্টমেন্ট পেয়েছিলেন বিজয়পাত সিংহানিয়া। এর মূল্য ধরা হয়েছিল বাজার মূল্যের  চেয়ে অনেক কম। গৌতম রেমন্ডের বোর্ডকে পরামর্শ দিয়েছেন ফ্ল্যাটটিকে যেন প্রতিষ্ঠানের মূল্যবান সম্পদ বিক্রি হিসেবে ধরা হয়।

♦  বাড়ি ছাড়তে হয় শিল্পপতি বাবা বিজয়পাত সিংহানিয়াকে। থাকছেন ভাড়া বাসায়। যে গাড়ি ছিল ড্রাইভারসহ তাও কেড়ে নেওয়া হয়।

♦ সম্পত্তির শেয়ারে ছেলের শতভাগ অধিকার নেই দাবি করে ওই বাড়ির তিনটি ফ্ল্যাট, একটি ডুপ্লেক্স দাবি করে ছেলের বিরুদ্ধে আদালতে যান বাবা।

♦  রেমন্ড গ্রুপের বর্তমান মালিক গৌতম সিংহানিয়ার কাছে ওই বাড়ির আরও দুটি ডুপ্লেক্সের দাবিদার বাবা বিজয়পাত সিংহানিয়ার ভাইয়ের স্ত্রী এবং তার দুই সন্তানও জোট বেঁধেছেন এই রেষারেষিতে।

Share Button