ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হয়ে লড়বেন মৌলভীবাজারের মেয়ে মিতা

এস এম মেহেদী হাসান:

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান নাগরিক, মৌলভীবাজার সদর উপজেলার জগৎপুর গ্রামের কলনদর মিয়া ও লুৎফুন নাহার মিয়া’র কন্যা এবং রাজনগর উপজেলার পাঠানতুলা গ্রামের শাহান খানের স্ত্রী বদরুন নাহার খান মিতা আগামী সাধারণ নির্বাচনে নিউইয়র্ক কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক-১৪ থেকে ডেমোক্রেটিক পার্টির হয়ে নির্বাচন করতে চান।

দলীয় মনোয়ন পেলে এবং বিজয় অর্জন করলে তিনিই হবেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রথম নারী কংগ্রেস।

বদরুন নাহার খান মিতার পিতা কলনদর মিয়া ১৯৬৫ সালে আমেরিকায় পাড়ি জমান। আর চাচা সিকান্দর মিয়া দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের পূর্ব থেকে আমেরিকায় বসবাস শুরু করেন। অর্থাৎ প্রথম যে ক’জন বাংলাদেশী আমেরিকায় গিয়েছেন, তাদের মধ্যে একজন সিকান্দর মিয়া।

কলনদর মিয়ার পাঁচ সন্তানের মধ্যে “বদরুন নাহার খান মিতা” দ্বিতীয়। মিতা ১৯৭২ সালে আমেরিকায় জন্ম গ্রহন করেন। সেখানে তার বেড়ে উঠা, লেখাপড়ায় মেধাবী ‘মিতা’ সে দেশে উচ্চত্বর ডিগ্রি অর্জন করেন। লেখাপড়ার পাশাপাশি বাংলাদেশী কমিউনিটির জন্য কাজ শুরু করেন। সঙ্গে সঙ্গে জাতীয় রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন।

বদরুন নাহার খান মিতা বৃহত্তর সিলেট বিভাগের আমরেলা সংগঠনের জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সফল সভাপতি। তার সময়ে আমেরিকায় মুসলিমদের জন্য একশ’র বেশি কবরের ব্যবস্থা করা হয়। তিনি আমেরিকার কমিউনিটি বোর্ডের মেম্বার।

তিনি ২০০০ সালে রাজনগর উপজেলার পাঠানতোলা গ্রামের সন্তান আমেরিকা প্রবাসী শাহান খানের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। এই দম্পতির আনিছা খান ও ইনায়া খান নামে দু’টি কন্যা সন্তান রয়েছে।

বাংলাদেশ কমিউনিটির পরিচিত মুখ বদরুন নাহার খান মিতা দলীয় মনোয়ন পেতে ভোটারদের মূল্যবান ভোটের প্রত্যাশা করে, গত কয়েক মাস ধরে চষে বেড়াচ্ছেন তার নির্বাচনী এলাকা।

ডিস্ট্রিক্ট-১৪ থেকে ডেমোক্রেটের কংগ্রেস প্রার্থী হিসেবে মনোয়ন পেতে তিনি দলীয় ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন। তুলে ধরছেন তার নির্বাচনী অঙ্গীকার। বলছেন, এই আসন থেকে তাকে দলের প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত করলে তিনি তার নির্বাচনী এলাকার জনগণের বাড়ি, চাকুরি, বেসিক ইনকামসহ ছয়টি বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করবেন। এজন্য দলীয় প্রার্থী হিসেবে তাকে মনোনীত করার জন্য ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছেন।

ডিস্ট্রিক্ট-১৪ থেকে ডেমোক্রেটিক পার্টির হয়ে মনোনয়ন পেতে মোট চার জন প্রার্থী লড়ছেন। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত বদরুন খান ছাড়া অন্য তিন প্রার্থী হলেন এই আসনের বর্তমান কংগ্রেস ওমেন আলেকজান্দ্রিয়া ওকাসিও কর্টেজ, মিশেল ক্রোসিও কাভেরা এবং স্যাম স্ল্যাওন।

আগামী ২৩ জুন অনুষ্ঠিত ডেমোক্রেটিক পার্টির অভ্যন্তরীণ নির্বাচনে দলীয় ভোটাররা এই চার জনের মধ্যে থেকে একজনকে নির্বাচিত করবেন কংগ্রেস প্রার্থী হিসেবে। যিনি নির্বাচিত হবেন তিনি আগামী ৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির হয়ে নিউইয়র্ক কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক্ট-১৪ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। এই আসনটিতে বরাবরই ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী জয়ী হয়ে থাকেন।

মিতা ২৩ জুনের নির্বাচনে জয়লাভ করতে পারলে তাহলে তিনি হবেন প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কোন নারী। যিনি আগামী জাতীয় নির্বাচনে কংগ্রেস ওমেন নির্বাচিত হওয়ার সুবর্ণ সুযোগ পাবেন। তবে তার আগে তাকে দলের বৈতরণি পার হতে হবে। এ জন্য তিনি দলীয় ভোটারদের সবার কাছে ভোট ও সমর্থন প্রার্থনা করছেন।

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার জগৎপুর গ্রামের মেয়ে বদরুন খান মিতা মুঠোফফোনে জানান, এই আসনে ডেমোক্রেটিক পার্টির ভোটারদের একটা বড় অংশ হচ্ছে মুসলিম এবং এশীয় অঞ্চলের বিশেষ করে পাকিস্তান, ভারত, শ্রীলংকা, মালয়েশিয়াসহ বিভিন্ন দেশের নাগরিক, যারা যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। এই ভোটাররা যদি ২৩ জুন ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেন তাহলে বদরুন খান মিতা নিশ্চিত জয়লাভ করবেন বলে আশাবাদী।

বদরুন নাহার খান মিতার ওয়েব সাইটের লিংক দেয়া হলো, আপনী জেনে নিন তার বিস্তারিত

Home
Share Button