ছেলেকে নিষ্ঠু’রভাবে মা’রছেন গৃহকর্মী, অফিসে বসে এ দৃশ্য দেখলেন অস’হায় বাবা!

ডেস্ক রিপোর্ট : বাবা-মা দুজনেই চাকরি করেন। ছোট্ট শিশুটিকে রেখে যান বাসায় গৃহকর্মী শাহিদা ওরফে তাজনারার (৪৫) কাছে। কিন্তু সেই গৃহকর্মী বাবা-মার অনুপস্থিতিতে শিশুটিকে নির্দ’য়ভাবে মা’রছেন। আর এই দৃ’শ্য অফিসে বসে দেখলেন বাবা ইঞ্জিনিয়ার মো. আল আমিন সরকার।

গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর শাহজাহানপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ইতোমধ্যে ছোট্ট শিশুকে ভ’য়াব’হ নি’র্যা’তনের দৃ’শ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাই’রাল হয়েছে।

জানা যায়, বাবা মো. আল আমিন সরকার একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত। অন্যদিকে, শিশুটির মা লুৎফুন্নাহার উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা। এই দম্পতির একমাত্র শিশু আবদুল্লাহ আবতাই আয়াতের বয়স মাত্র দুই বছর। স্বামী-স্ত্রী দু’জনেই চাকরি করায় আয়াত থাকত বাসায় গৃহকর্মী শাহিদার কাছে। কিছুদিন ধরেই সন্তানকে দেখে এমনই কিছু একটা আশং’কা হয়েছিল বাবার। যে কারণে তিনি দ্রু’ত নিজের বাসায় সিসি ক্যামেরা স্থাপন করেন। আইপি ক্যামেরায় ধা’রণকৃত ফুটে’জ তিনি নিজের স্মার্টফোনেই লাই’ভ দেখতে পারতেন।

এদিকে, গত বৃহস্পতিবার অফিসে বসে ভ’য়ংক’র এক দৃ’শ্য চোখে পড়ল আল আমিন সরকারের। সিসি ক্যা’মেরায় ধ’রা পড়ে গৃহকর্মী দ্বারা সন্তানকে নি’র্যাত’নের দৃ’শ্য! বাথরুম থেকে ঘরের ভেতর ছু’ড়ে ফেলে দিয়ে ওইটুকু শিশুকে একের পর এক লা’থি মা’রতে থাকে সেই গৃহকর্মী শাহিদা! অতঃপর ক্রন্দ’নরত শিশুকে সেভাবে ফে’লে দিয়েই আবারও নিজের কাজে মন দেয় সে। এ দৃ’শ্য দেখার সঙ্গে সঙ্গেই তিনি ছু’টেন বাসার দিকে। উদ্ধা’র করেন নিজের সন্তানকে।

এ ঘটনায় গত ১৫ নভেম্বর রাত সোয়া ৯টার দিকে শাহজাহানপুর থানায় শিশু নি’র্যাত’ন দম’ন আইন-২০১৩ (সংশোধিত ২০১৮) এর ৭০ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন আল আমিন সরকার। এ ঘটনায় পরে অভিযু’ক্ত গৃহকর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

শিশুটির বাবা আল আমিন সরকার জানান, ‘আমি একজন অস’হায় বাবা, যাকে দেখতে হয়েছে দুই বছরের সন্তানকে বীভ’ৎস মা’রের দৃ’শ্য! এই নি’র্যাত’নের দৃ’শ্য দেখেও কিছু করতে না পারার আ’ক্ষে’পে পুড়’ছি আমি। বাচ্চাটা মা’র আর লা’থির ভ’য়ে এতটাই ভী’ত হয়ে পড়েছিল যে, ‘বাবা’ বলতে যেন ভুলেই গিয়েছিল!

এ বিষয়ে শাহজাহানপুর থানার ওসি মো. শহীদুল হক গণমাধ্যমকে জানান, গৃহকর্মীর দ্বারা শিশু নি’র্যাত’নের ঘটনায় বৃহস্পতিবার সিসিটিভি ফুটে’জে মা’রধ’রের চিত্র পাওয়ার পর শুক্রবার পরিবার মামলা করে। এ ঘটনায় সেদিনই গৃহকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

Share Button