কমলগঞ্জে দু’ই গৃহবধূকে ধর্ষণ : গাড়ী চালকসহ আটক ৭

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি : মৌলভীবাজার জেলা কারাগারে স্বামীর সাথে দেখা করে বাসায় ফেরার পথে কমলগঞ্জের দেওরাছড়া চা বাগান এলাকায় দুই গৃহবধূ গণধর্ষনের শিকার হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে মূল হোতা সিএনজি অটোরিক্সা চালক ইউসুফসহ ৭ জনকে আটক করেছে।
পুলিশ জানায়, নাছরিন ও হোসনা নামের ২ গৃহবধু একে অপরের পরিচিত। হোসনার স্বামী বাহার মিয়া একটি মারামারির মামলায় জেলা কারাগারে আটক রয়েছেন। তার সাথে দেখা শেষে শুক্রবার সন্ধ্যায় মৌলভীবাজার শহরের শমশেরনগর রোড থেকে তারা কমলগঞ্জের মুন্সীবাজারস্থ বাসায় যাওয়ার জন্য সিএনজি অটোরিক্সা ভাড়া করেন। সিএনজি চালক প্রধান সড়ক দিয়ে না গিয়ে ফাঁড়ি পথে নিয়ে গেলে তারা প্রতিবাদ জানালে রাস্তা খারাপের অজুহাত দেখায় চালক। অটোরিক্সা চালক ইউসুফ তার সহযোগীদের মুঠোফোনে খবর দিয়ে রাস্থায় ২ জনকে গাড়ীতে উঠায়। এসময় আরও দু’টি অটোরিক্সা নিয়ে ৪ জন এসে যুক্ত হয়। পরে দুই গৃহবধূকে চা বাগাননের নির্জন এলাকায় ৭ জন মিলে গণধর্ষন করে। গনধর্ষন শেষে ধর্ষকরা গাড়ীতে তোলে পার্শবর্তী বাবু বাজার এলাকায় রাত ৯টায় নামিয়ে দেয়।
পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ ৭ জন আটকের সত্যতা স্বীকার করে জানান, মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Share Button