কবুতরের দাম ১৬ কোটি টাকা!

ডেস্ক রির্পোট: কয়েকদিন ধরে নিলাম চলার পর রেকর্ড দামে নিউ কিম নামের সেই বিশেষ প্রজাতির কবুতরটি বিক্রি হয়েছে। বেলজিয়ামের ওই ‘রেসিং পিজন’ ১৬ কোটি ৪ লাখ ৫২ হাজার টাকায় (১ ইউরো = ১০০.২৫ টাকা) কিনেছেন চীনের এক ধনাঢ্য ব্যবসায়ী। বিবিসি।

বিবিসি জানায়, কয়েকদিন আগে ২ বছর বয়সী ও মেয়ে কবুতরটিকে বিক্রির জন্য নিলামে তোলা হয়। গতকাল রোববার তা বিক্রি হয়। নিলামে ১ দশমিক ৬ মিলিয়ন ইউরো দাম হেঁকে কবুতরটি কেনেন ওই ব্যবসায়ী।

‘রেসিং পিজন’ বিক্রির ক্ষেত্রে এটা বিশ্ব রেকর্ড। বিশেষ প্রজাতির এই কবুতরের কাজ হল উড়ার প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া। সাধারণত কবুতরগুলোকে একশ থেকে এক হাজার দূরত্বের কোনো স্থানে ছেড়ে দেয়া হয়। তারপর সবচেয়ে আগে উড়ে যে নির্দিষ্ট বাড়িতে পৌঁছাতে পারে সেই বিজয়ী হয়। আর পুরস্কার হিসেবে মোটা অংকের অর্থ পায় সেই কবুতরের মালিকের।

কবুতরদের এই প্রতিযোগিতায় সর্বশেষ বিজয়ী আর্মান্ডো, যাকে পরে ফর্মুলা ওয়ান রেস চ্যাম্পিয়ন লুইস হ্যামিলটনের নামে নামকরণ করা হয়।

বিবিসি বাংলা জানায়, নিউ কিম ২০১৮ সাল থেকে বেশ কয়েকটি প্রতিযোগিতায় জিতেছে। তারপর সে প্রতিযোগিতা থেকে অবসরে গেছে। অবসর জীবনে বেশ কিছু ছানার জন্ম দেয় সে।

নিউ কিমের মালিক একটি বেলজিয়ান পরিবার, এই বিপুল পরিমাণ অর্থে কবুতরটি বিক্রি হওয়ায় রীতিমতো বিস্মিত। যে চীন ধনাঢ্য ব্যক্তি তাকে কিনেছে তার শখ হল ‘রেসিং পিজন’ সংগ্রহ করা।

চীনে সম্প্রতি ‘পিজন রেসিং’ খুবই জনপ্রিয়তা পেয়েছে। নিউ কিম মেয়ে কবুতর হওয়ায় তার দাম এত বেশি হয়েছে কারণ তাকে এই প্রজাতির কবুতর প্রজননে কাজে লাগানো যায়।

এর আগে বেলজিয়ামেই বিশ্বের সবচেয়ে দামি কবুতরের রেকর্ডটি ছিল কিমেরই স্বদেশী ‘আরমান্ডো’র দখলে। ২০১৯ সালে  তাকে ১ দশমিক ২৫ মিলিয়ন ইউরোতে কিনে নিয়েছিলেন আরেক চীনা ব্যবসায়ী।

সম্পাদনায়: মোন।

Share Button